যে লক্ষণে বুঝবেন আপনি ডায়াবিটিসে আক্রান্ত!

যে লক্ষণে বুঝবেন আপনি ডায়াবিটিসে আক্রান্ত!

টিবিটি স্বাস্থ্য-কথাঃ আজকাল সারা পৃথিবীজুড়ে সবার একটি রোগ কমন হয়ে দাঁড়িয়েছে। বয়সেরও কোনো মাপকাঠি নেই। ছোট বড় সবাই আক্রান্ত হচ্ছে এই রোগে। আর এই রোগটি হচ্ছে ডায়াবিটিস। সুগারে মাত্রা কম, বেশি হয়ে মানুর মারা যাওয়ার উদাহারণও কম নয়।

তবে একটু সাবধানতা অবলম্বন করলে ও উপসর্গ দেখা দিলেই সচেতন হলে কমানো যায় অনেক অসুখের প্রবণতা। বিশেষ করে, ডায়াবিটিস। এটি আক্রমণের আগে নানাভাবে জানান দেয় শরীরে। তখনই সাবধান হলে অনেকাংশেই ঠেকিয়ে রাখা যায় বিপদ।

যদি ঘন ঘন প্রস্রাবের অভ্যাস তৈরি হয়, তাহলে সাবধান হোন। রক্তে শর্করা বাড়লে তা কিডনিতে চাপ সৃষ্টি করতে থাকে, শরীর থেকে অতিরিক্ত শর্করা বার করে দেওয়ার জন্যই এই চাপ। তাই ঘন ঘন প্রস্রাব হয়। অনেকে প্রস্রাবের তাড়না বুঝে ওঠার আগেই প্রস্রাব করে পেলেন। এমন হলে অবশ্যই ব্লাডসুগার পরীক্ষা করান।

হাত-পা কিংবা হাত-পায়ের কোনো আঙুল কি অবশ হয়ে পড়ছে? এমন হলে দ্রুত সতর্ক হোন। রক্তে শর্করা বাড়ার এটি অন্যতম লক্ষণ।

রক্তে শর্করা বাড়লে তা বার করার জন্য কিডনিতে চাপ দেয় বলে যেমন ঘন ঘন প্রস্রাব হয়, তেমনই অতিরিক্ত প্রস্রাবের কারণে শরীরের পানি বেরিয়ে যায়। তাই পানির তৃষ্ণা পায় প্রবলভাবে। এমনকি, রাতে ঘুমের মধ্যেও জিভ শুকিয়ে পানির তৃষ্ণা পায় বারবার।

শরীরে কোনো ঘা অনেক দিন ধরে না শুকোলে সচেতন হোন।

ক’দিন ধরে কি হঠাৎই চোখে কম দেখছেন? চশমা বদলানো বা চিকিৎসকের সঙ্গে পরামর্শ ছাড়াও একবার ব্লাডসুগার পরীক্ষা করান। রক্তে শর্করার মাত্রা বেড়ে গেলে তার প্রভাব পড়ে দৃষ্টিশক্তির ওপর।

সহজেই ক্লান্ত হয়ে পড়ছেন? হাঁপিয়ে যাচ্ছেন প্রায়ই? খুব অল্পেই হাঁপিয়ে ওঠা রক্তে শর্করার মাত্রা বৃদ্ধির লক্ষণ। এর ফলে ডিহাইড্রেশনের শিকার হয় শরীর। ফলে দুর্বলতা বাড়ে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2019 kantarpollinews
Design BY NewsTheme