সর্বশেষ:
হা’সপাতালের বিল পরিশোধ করে জানতে পারলেন স্ত্রী মা’রা গেছে

হা’সপাতালের বিল পরিশোধ করে জানতে পারলেন স্ত্রী মা’রা গেছে

নারায়ণগঞ্জ শহরের চাষাঢ়ায় কেয়ার জেনারেল হাস*পাতালে ডাক্তারে ভুল চিকিৎসা ও ক্লিনিক কর্তৃপক্ষের অবহেলায় মিলি বেগম (২৯) নামে গৃহবধূর মৃ’ত্যুর অ’ভিযোগ উঠেছে। এসময় রোগীর স্বজনরা হাস*পাতালে ভাঙচুর চালিয়েছে। পু’লিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বা’স দিলে স্বজনরা শান্ত হয়। সোমবার বিকেলে এ ঘটনা ঘটে।

নি’হত মিলি বেগম ফতুল্লা থানাধীন শিবুমা’র্কেট পশ্চিম লামাপাড়া এলাকার মো. শাহ আলমের স্ত্রী’।নি’হতের স্বামী শাহ আলম বলেন, মিলির কয়েক সপ্তাহ ধরে প্রচণ্ড মাথা ব্যথার জন্য মেডিসিন ও স্নায়ুরোগ বিশেষজ্ঞ ডা. জাহের আলীকে দেখাই। তার পরাম’র্শ অনুযায়ী রাত পৌনে ১১টায় কেয়ার হাস*পাতালে ভর্তি করি। ব্যথা না কমায় সোমবার ৩টার দিকে আবারও ডাক্তার ডাকতে গেলে হাস*পাতালের লোকজন আবারও ওষুধ আনতে পাঠায়। ওষুধ নিয়ে আসার আগেই আমা’র স্ত্রী’কে হাস*পাতালের বাইরে অ্যাম্বুলেন্সে তুলে ফেলে। আর বলে দ্রুত হাস*পাতালের বিল পরিশোধ করেন আপনার স্ত্রী’র অবস্থা খা’রাপ ঢাকায় নিয়ে যেতে হবে। বিল পরিশোধ করার পর হাস*পাতালের এক কর্মক’র্তা বলে আমা’র স্ত্রী’ মা’রা গেছে।

তিনি বলেন, ওই ডাক্তারের ভুল চিকিৎসা ও টাকার জন্য হাস*পাতালের লোকজন আমা’র স্ত্রী’কে মে’রে ফেলেছে। হাস*পাতাল থেকে সকালে ঢাকা নিতে দিলে আমা’র স্ত্রী’ ম’রতো না। ওরা টাকার জন্য আমা’র স্ত্রী’কে মে’রে ফেলছে। আমি এর বিচার চাই।

হাস*পাতালের সহকারী জেনারেল ম্যানেজার আবু বক্কর বলেন, ডা. জাহের আলীর নির্দেশে রোগীকে ভর্তি করা হয়। তবে তিনি এখানে আসেননি। পরে তার পরাম’র্শ অনুযায়ী রোগীকে স্যালাইনসহ অন্যান্য ওষুধ দেয়া হয়। ধারণা করা হচ্ছে ব্রেইন স্ট্রোক করার কারণে তার মৃ’ত্যু হয়েছে।

এ দিকে মিলি কেয়ার হাস*পাতালে কোন চিকিৎসকের তত্ত্বাবধানে ছিলেন তা জানাতে নারাজ হাস*পাতাল কর্তৃপক্ষ। তবে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক হাস*পাতালের এক স্টাফ জানান, ডা. ফয়সাল নামে এক চিকিৎসকের তত্ত্বাবধানে ছিলেন মিলি। তবে ডা. ফয়সালকে হাসাপাতালের কোথাও পাওয়া যায়নি। এমনকি হাস*পাতালের কেউ তার ফোন নম্বরটিও দিতে রাজি হননি।

চাষাঢ়া পু’লিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক মিজানুর রহমান মিজান বলেন, এখনও কাউকে আ’ট’ক করা হয়নি। বিষয়টি ত’দন্ত চলছে। ত’দন্ত শেষে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2019 kantarpollinews
Design BY NewsTheme