প্রধানমন্ত্রীর নতুন ঘোষণার পর আওয়ামী লীগের দুপক্ষের সং’ঘর্ষ, গো’লাগু’লি

প্রধানমন্ত্রীর নতুন ঘোষণার পর আওয়ামী লীগের দুপক্ষের সং’ঘর্ষ, গো’লাগু’লি

রাজশাহীতে ক্ষমতাশীন আওয়ামী লীগের দুটি পক্ষের মধ্যে সং’ঘর্ষ ও গো’লাগু’লির ঘটনা ঘটেছে। শুক্রবার দুপুরের দিকে নগরীর মতিহার থানার ফুলতলা ঘাট এলাকায় ওই সং’ঘর্ষ হয়। বালুঘাট ইজারা নিয়ে বি’রোধের জেরে এই সং’ঘর্ষ বাধে বলে জানা গেছে। পরে প্রতিপক্ষকে দমাতে গু’লিও ছোঁ’ড়া হয়। এতে অন্তত তিন জন আ’হত হয়েছেন। এরা হলেন-নগরীর ২৮ নম্বর ওয়ার্ড স্বেচ্ছাসেবক লীগের আহবায়ক মো. জনি (৩০), যুবলীগের কর্মী মো. টুটুল (৩২) এবং স্বেচ্ছাসেবক লীগ কর্মী সুজন আলী (২৮)।

এদের মধ্যে জনি ও সুজনকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে নেয়া হয়। আর প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে ফিরে গেছেন টুটুল। হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, জনির ঊরুতে গু’লি লেগেছে। তার এক হাতের দুটি আ’ঙুলও কে’টে গেছে। আর সুজনের কবজিতে গু’রুতর জ’খম রয়েছে। তবে দুজনেই আ’শঙ্কামুক্ত। আ’হতদের দাবি, ২৮ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের বহিষ্কৃত সভাপতি আবদুস সাত্তার ও তার ছেলেদের নেতৃত্বে হা’মলা হয়েছে।

তাদের অ’ভিযোগ, এলাকায় বালুঘাট চালু করার জন্য ২০১০ সালে আবদুস সাত্তার এলাকা অর্ধশতাধিক মানুষের কাছ থেকে মোটা অঙ্কের চাঁদা তোলেন। ওই সময় জনিও চাঁদা দিয়েছিলেন। সংগ্রহ করা টাকায় নিজের নামে মহাব্বতের মোড় এলাকায় একখন্ড জমি কেনেন আবদুস সালাম। কেনেন বালু তোলার জন্য বোমা মেশিন। কিন্তু বালুমহল ইজারা পাননি আবদুস সাত্তার। এরই মধ্যে জমি এবং বাড়ি দখলের অ’ভিযোগওঠে আবদুস সাত্তারের বিরুদ্ধে ।

এরপর তাকে দল থেকে বহিস্কার করা হয়। আহত জনির ভাষ্য, টাকা ফেরৎ না পেয়ে তিনি বোমা মেশিনটি দখলে নেন। এ নিয়ে আবদুস সাত্তার ও তার লোকজনের সাথে বিরোধ বাধে। শুক্রবার সকালে জমি লোকজন নিয়ে মেশিন মেরামত করতে গিয়েছিলেন। ওই সময় প্রতিপক্ষ তার উপর হা’মলা চালায়। তবে এই হা’মলায় নিজের সম্পৃক্ততার দায় অস্বীকার করেন আওয়ামী লীগ নেতা আবদুস সাত্তার। আর তার ছেলেরা এই কাণ্ডে জ’ড়িত কি-না তা জানাতে পারেননি তিনি।

বালু মহল ইজারার নামে চাঁদা তোলার বিষয়টি নাকচ করেন আবদুস সালাম। সংঘর্ষের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন নগরীর মতিহার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাফিজুর রহমান। তবে ওই সময় গো’লা’গুলি হয়েছে কি-না তা নিশ্চিত নন তিনি। এনিয়ে এখনো অ’ভিযোগ আসেনি উল্লেখ করে অ’ভিযোগে পেলে আ’ইনত ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানান ওসি।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2019 kantarpollinews
Design BY NewsTheme