সর্বশেষ:
সুখবর, তিন লাখ বেকারদের চাকরি দেবে সরকার

সুখবর, তিন লাখ বেকারদের চাকরি দেবে সরকার

বেকারদের চাকরি দেবে- দেশের শিক্ষিত বেকার যুবকদের জন্য সুখবর আসছে। খুলছে তাদের চাকরির দ্বার। চলতি বছর সরকারি, আধা সরকারি ও স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠানে শূন্য পদের বিপরীতে প্রায় তিন লাখ লোক নিয়োগ দেবে সরকার। এর মধ্যে রয়েছে তৃতীয় ও চতুর্থ শ্রেণি পদে প্রায় ৫০ হাজার অস্থায়ী ভিত্তিতে (অ্যাডহক) এবং বিভিন্ন পদে স্থায়ীভাবে প্রায় দুই লাখ লোক।

সরকারি প্রথম শ্রেণির কর্মকর্তা পদে প্রায় পাঁচ হাজার লোক নিয়োগের চিন্তাভাবনাও রয়েছে। এ জন্য শিগগিরই ৪১তম বিসিএসের সার্কুলার জারি করা হবে। ৪০তম বিসিএসের সার্কুলার জারি করা হয়েছে ইতিমধ্যে। মোট এক হাজার ৯০৩ জন ক্যাডার নিয়োগ দেওয়া হবে এ বিসিএসে।

এ ছাড়া আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বিভিন্ন বাহিনীতে ৬০ হাজার, শিক্ষা খাতে ৪০ হাজার, স্বাস্থ্য খাতে ৩৫ হাজার, ব্যাংকিং খাতে ২০ হাজার লোক নিয়োগ দেওয়া হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনায় এই নিয়োগ কার্যক্রম শুরু হচ্ছে। সরকারি একাধিক সূত্রে জানা গেছে এ তথ্য।

সূত্র জানায়, এই লোক নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু হবে আগামী জুন থেকে। ইতিমধ্যে নিজ নিজ মন্ত্রণালয় ও বিভাগের শূন্য পদের তালিকা তৈরি করা হচ্ছে। ১০ শতাংশ শূন্য পদ রেখে বাকি পদে শিগগিরই নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু করবে তারা। পাশাপাশি অ্যাডহক ভিত্তিতে যেসব পদে নিয়োগ দেওয়া হবে, তারও একটি তালিকা জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে পাঠানোর প্রস্তুতি নিচ্ছে মন্ত্রণালয় ও বিভাগগুলো।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সচিব ফয়েজ আহমেদ বলেন, ‘শিক্ষিত বেকার যুবকদের কর্মসংস্থানে সরকারি সংস্থাগুলোর শূন্য পদে লোক নিয়োগ চলমান প্রক্রিয়া। পদ শূন্যের ভিত্তিতে সরকারি প্রতিষ্ঠানগুলো জনবল নিয়োগ দেয়। কিন্তু বর্তমানে কিছু কিছু খাতে শূন্য পদের সংখ্যা বেশি।

এটি পূরণে উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।’ তিনি বলেন, ‘ইতিমধ্যে শূন্য পদে লোক নিয়োগে বিভিন্ন সময়ে জারি করা পরিপত্রের নির্দেশনা কার্যকর করতে সচিবদের বলা হয়েছে। প্রথম শ্রেণি পদ বাদে অন্য যেসব পদে এডহক ভিত্তিতে নিয়োগ দেওয়া হবে, সেসব পদে এভাবে নিয়োগ প্রক্রিয়া চূড়ান্ত করা হচ্ছে।’

গত বছর সচিব সভায় প্রশাসনের শূন্য পদ দ্রুত পূরণের নির্দেশনা দিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এরপর জাতীয় নির্বাচনের আগে সচিব সভায় শূন্য পদ পূরণে প্রধানমন্ত্রীর সেই নির্দেশনা দ্রুত বাস্তবায়নের জন্য প্রত্যেক সচিবকে তাগিদ দেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব। এ ছাড়া গত ২৫ জানুয়ারি জাতির উদ্দেশে দেওয়া ভাষণে প্রধানমন্ত্রী আগামী পাঁচ বছরের মধ্যে এক কোটি ২৮ লাখ কর্মসংস্থান সৃষ্টির প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন।

সম্প্রতি প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে বিভিন্ন মন্ত্রণালয়, বিভাগ, দপ্তর ও সংস্থায় শূন্য পদে দ্রুত নিয়োগে শূন্য পদের তথ্য এবং পদ পূরণের জন্য কর্মপরিকল্পনা চাওয়া হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মুখ্য সচিব মো. নজিবুর রহমান স্বাক্ষরিত এ সংক্রান্ত চিঠি গত ৪ মার্চ সংশ্নিষ্ট মন্ত্রণালয়, বিভাগ, দপ্তর ও সংস্থায় পাঠানো হয়েছে।

সূত্র জানায়, সম্প্রতি সরকারের উচ্চ পর্যায়ের বৈঠকে শূন্য পদে লোক নিয়োগের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এর মধ্যে যেসব পদে নিয়োগ দেওয়া হবে তারও একটি তালিকা তৈরির নির্দেশ দেওয়া হয় ওই বৈঠকে। নিয়োগের সকল প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতেও জনপ্রশাসন ও অর্থ মন্ত্রণালয়কে দায়িত্ব দেওয়া হয়।

এ ছাড়া বৈঠকে বলা হয়, যেসব পদে এডহক ভিত্তিতে নিয়োগ দেওয়া যাবে তার একটি তালিকা তৈরি করতে হবে স্ব স্ব মন্ত্রণালয় ও বিভাগকে। জনপ্রশাসন ও অর্থ মন্ত্রণালয় এটি যাচাই-বাছাই করে এ প্রক্রিয়ায় নিয়োগের অনুমতি দেবে। এ বৈঠকের পরই বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও বিভাগ শূন্য পদে লোক নিয়োগের তালিকাসহ বিভিন্ন পদে সম্ভাব্য অ্যাডহক ভিত্তিতে নিয়োগের তালিকা তৈরির কাজ করছে।

জানা গেছে, সরকারি চাকরিতে ২০ লাখ ৫০ হাজার ৮৬১টি পদের মধ্যে শূন্য রয়েছে তিন লাখ ৯৯ হাজার ৮৯৭টি পদ। প্রথম শ্রেণির পদ শূন্য রয়েছে ৪৮ হাজার ৭৯৩টি। এর মধ্যে ১০ হাজার ৬৬৭টি রয়েছে সহকারী সচিব পদমর্যাদার। দ্বিতীয় শ্রেণির শূন্য পদ রয়েছে ৬৫ হাজার ৮৩টি। তৃতীয় শ্রেণিতে শূন্য পদ রয়েছে দুই লাখ ছয় হাজার ৭৬০টি। চতুর্থ শ্রেণিতে ৭৯ হাজার ২৬১টি। এবার আইন-শৃঙ্খলা খাতে সবচেয়ে বেশি লোক নিয়োগ হবে। এ খাতে নিয়োগ হবে প্রায় ৬০ হাজার লোক।

স্বাস্থ্য খাতেও নিয়োগ হবে প্রায় ৩০ হাজার। এ ছাড়া শিক্ষা, ব্যাংক, কৃষি, রেলসহ অন্যান্য খাতে প্রায় দুই লাখ লোক নিয়োগ হবে। স্থানীয় সরকারের উন্নয়ন কাজ ত্বরান্বিত করতে নিয়োগ দেওয়া হবে পাঁচ হাজার প্রকৌশলীকেও।নিউজ ডেস্ক।। দেশের শিক্ষিত বেকার যুবকদের জন্য সুখবর আসছে। খুলছে তাদের চাকরির দ্বার। চলতি বছর সরকারি, আধা সরকারি ও স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠানে শূন্য পদের বিপরীতে প্রায় তিন লাখ লোক নিয়োগ দেবে সরকার।

এর মধ্যে রয়েছে তৃতীয় ও চতুর্থ শ্রেণি পদে প্রায় ৫০ হাজার অস্থায়ী ভিত্তিতে (অ্যাডহক) এবং বিভিন্ন পদে স্থায়ীভাবে প্রায় দুই লাখ লোক। সরকারি প্রথম শ্রেণির কর্

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2019 kantarpollinews
Design BY NewsTheme